মে দিবসের ইতিহাস ও তাৎপর্য কি


 

মে দিবস বা আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস দিবসটি বিশ্বজুড়ে শ্রমিক ও শ্রমিকদের আবদানকে স্মরণ করতে উদযাপিত হয় । পহেলা মে বাংলাদেশ ও ভারত সহ বিশ্বের প্রায় ৮০টি দেশে এদিন সরকারি ছুটি থাকে এবং পালিত হয় । এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন আন্তর্জাতিক শ্রম দিবসের ইতিহাস ও এটা কিভাবে শুরু হয়েছিল ।

আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের ইতিহাস

বিশেষ এই দিবসের সূত্রপাত ঘটে আমেরিকার গৃহযুদ্ধ পরবর্তী সময় ১৮৬৬সালের দিকে ।যখন শ্রমিকদের দৈনিক ১০ থেকে ১৬ঘন্টার কার্যদিবস হতে ৮ ঘন্টা’তে কমিয়ে আনতে ‘ন্যাশনাল লেবার ইউনিয়ন’ কর্তৃক কংগ্রেসে এ দাবি উপস্থাপিত হয় ।এবং ১৮৬৮সালে কংগ্রেস ও ছয়টি রাজ্যে আইনটি পাস হয় ।

১লা মে ১৮৮৮ সালে এই আইন প্রয়োগের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ সাধারণ শ্রমজীবীরা ও শ্রমিক সংগঠনগুলো নিশ্চিত করে তারা দৈনিক ৮ঘন্টার অধিক কাজ করবে না এবং দাবি আদায়ে ধর্মঘটের ডাক দেয় । অবশেষে ৪ মে ১৮৮৬ তারিখে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে হে মার্কেটে স্কয়ারে বিপুল সংখ্যক শ্রমজীবী মানুষরা ৮ঘন্টা শ্রমের অধিকার আদায়ের জন্য পথে নেমে আসলে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয় এবং হঠাৎ পুলিশের ছোড়া গুলিতে ৪জন বিক্ষোভকারী শ্রমিক মারা যান ও অসংখ্য আহত হন ।

অবশেষে ১৪জুলাই ১৮৮৯ সালে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সমাজতান্ত্রিক সম্মেলনে শিকাগো’র হে মার্কেটে ঘটে যাওয়া ঘটনা ও সাধারণ শ্রমজীবীদের ত্যাগ স্মরণে শ্রদ্ধা জানাতে প্রতি বছর ১ মে তে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ।

শ্রমজীবী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ধনিক বু্র্জোয়া শ্রেণির দুয়ারে প্রথম আঘাত হলো এই এই মহান মে দিবস । মে দিবস একদিকে যেমন বেদনার, তেমনি এটি গর্বের । সেই ঘটনার স্মরণে প্রতিবছর ১ মে সারা বিশ্বে পালিত হয় ‘মহান মে দিবস’ । দিবসটি উদযাপনের জন্য বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।বেশিরভাগ ইভেন্টেই শ্রমিকদের দৈনন্দিন সংগ্রাম এবং তাদের কাজ কীভাবে পুরো দেশে আর্থ-সামাজিক সংস্কারের উন্নয়ন আনতে পারে তা চিত্রিত করে ।

Post a Comment

0 Comments